উপকূলীয় উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের সভায় অরক্ষিত উপকূল রক্ষায়, উপকূলীয় উন্নয়ন বোর্ড গঠনের দাবী

0
85


ভয়াল ২৯ এপ্রিল’৯১ স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা বলেন, বিশাল উপকূল অঞ্চল জুড়ে প্রচুর সম্ভাবনা থাকলেও পরিকল্পনার অভাবে তা কাজে লাগানো যাচ্ছে না। বরং প্রতিবছর বছর সমুদ্রের ভাঙ্গনে উপকূল অনেকাংশে অরক্ষিত রয়ে গেল। উপকূলের উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে সত্যিকারে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত করা সম্ভব। উন্নয়নের জন্য পার্বত্য অঞ্চলের আদলে উপকূলীয় উন্নয়নবোর্ড অথবা মন্ত্রণালয়ের প্রতিষ্ঠা করার দাবী জানান বক্তারা।
১৯৯১ সালের ২৯ এপ্রিলের স্মৃতি চারণ করতে গিয়ে বক্তারা আরো বলেন , আমরা যারা সেদিন ভাগ্যক্রমে বেঁচে গিয়েছি, প্রজন্মকে রক্ষা করার দায়িত্ব তাদেরকে নিতে হবে। আর কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগে এত মানুষের প্রাণহানি যেন না হয়। অনেকে স্বজন হারানোর স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে যান। গতকাল চেরাগী পাহাড়স্থ সুপ্রভাত ষ্টুডিও হলে উপকূলীয় উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এক স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল সংগঠনের চেয়ারম্যান প্রয়েসর ডঃ কামাল হোসাইনের সভাপতিত্ত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সানাউল্লাহ, ডায়মন্ড সিমেন্ট লিঃ এর এম.ডি. লায়ন মোহাম্মদ হাকিম আলী, বিশিষ্ট প্রাণী বিজ্ঞানী ও চবি প্রফেসর ড. বদরুল আমিন ভূইয়া, সাধারণ সম্পাদক আকবর খাঁন, চট্টগ্রাম মাও শিশু হাসপতালের ভাইস প্রেসিডেন্ট লায়ন মোরশেদ হোসেন, কুতুবদিয়া সমিতির উপদেষ্টা শফিউল আলম, শিক্ষাবিদ মোজাম্মেল হক, প্রাণীবিজ্ঞানী অধ্যাপক ইউনুচ হাসান, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য সাংবাদিক মাহবুবুল মওলা রিপন, কুতুবদিয়া প্রতিনিধি অধ্যাপক দেলোয়ার হোছাইন, সন্দীপ প্রতিনিধি মোবারক হোসাইন ভূইয়া, আনোয়ারা প্রতিনিধি আনিচুর রহমান, হাতিয়া প্রতিনিধি জিয়াউর রহমান, পেকুয়া প্রতিনিধি বেলাল হোছাইন ও কেন্দ্রীয় নেতা সাব্বির আহমদ প্রমুখ। এছাড়া টেকনাফ, বাঁশখালী, কক্সবাজার, সন্দীপ, আনোয়ারা সহ উপকূলীয় উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন উপজেলায় যথাযথ মর্যাদায় দিনটি পালন করা হয়। সভা শেষে যারা মৃত্যুবরণ করেন তাদের জন্য দোয়া পরিচালনা করেন, মওলানা জয়নাল আবেদীন কুতুবী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here