গলার কাটা বাংলাদেশ!

0
21

স্পোর্টস ডেস্ক: খেলাটা একটু আজব না! যে ইংল্যান্ডের হার দেখতে বরাবর আনন্দ সেই তাদের জন্য গলা ফাটানোর কথাও ভাবছে এখন নিউজিল্যান্ড! তাদের বিখ্যাত সংবাদপত্র স্টাফের বৃহস্পতিবারের শিরোনাম, ‘ওহ, ইংল্যান্ড! বাংলাদেশকে পেরিয়ে আসতে পারলে ব্ল্যাকক্যাপস এক পুরোনো শত্রুর জন্যও গলা ফাটাতে তৈরি!’ তবে আগে বাংলাদেশকে হারাতে হবে তো! মাশরাফি বিন মুর্তজার দলই তো পথের আসল কাঁটা। বিপজ্জনক দলটির কাছে হারলে যে ইংল্যান্ডের জন্য গলাই ফাটানোর উপলক্ষ্যও আসবে না! কিউইদের মতো ভাবছে কিন্তু টাইগাররাও!

সাগরের এপার ওপারের দেশ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড। তা অস্ট্রেলিয়ার সাথে নিউজিল্যান্ডারদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা অনেক প্রাচীন। কিন্তু ইংল্যান্ডের সাথে সেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা তো আসলে শত্রুতার মতো। তাই কিউই সমর্থকরাও কখনো ঠিক ইংলিশদের সমর্থন করার কথা ভাবে না। আর সেটা ইংল্যান্ডের মাটিতে? তা কল্পনারই বাইরে। কিন্তু পরিস্থিতি কখন যে কাদের কোথায় নিয়ে দাঁড় করায়!

চলমান আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ‘এ’ গ্রুপে অবস্থাটা জটিল। সেমি-ফাইনালের আগে এই গ্রুপে আর দুটি ম্যাচ বাকি। শুক্রবার কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড মুখোমুখি। দুই দলেরই পয়েন্ট ১। অস্ট্রেলিয়ার ২। ইংল্যান্ডের ৪। ইংলিশরা চলে গেছে সেমিফাইনালে। বাকী তিন দলের আর একটি যাবে শেষ চারে। সবার সম্ভাবনা আছে। এখন নিউজিল্যান্ড যদি বাংলাদেশকে বা বাংলাদেশ হারায় নিউজিল্যান্ডকে তারপরও দুই ক্ষেত্রেই জয়ী দলকে ২৪ ঘণ্টা পরের আরেকটি ম্যাচের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে। সেটি ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার। ওই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া জিতলে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ম্যাচে জয়ীর টুর্নামেন্ট শেষ। কিন্তু ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে জিতলে নিউজিল্যান্ড-বাংলাদেশ ম্যাচের জয়ীরা উঠে যাবে সেমিফাইনালে। ভাগ্য এখন শত্রুর হাতে!

নিউজিল্যান্ডের কোচ মাইক হেসন এই পরিস্থিতিতে কি বলতে পারেন? তার সামনে যখন সব হিসেব পরিস্কার তখন ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ তো দূরের হিসেব। হেসন ‘ফার্স্ট থিং ফার্স্ট’ হিসেব কষে সাফ জানালেন, ‘এটা একেবারে পরিস্কার যে আমাদের আগে শুক্রবারের ম্যাচটা জিততে হবে। আমরা তা করতে পারলে বৃষ্টিতে ওয়াশ আউট বা ইংলিশদের জয় আমাদের পার করে দিতে পারে। খুব সরল হিসেব। নেট রান রেটের ক্যালকুলেশনের দরকারই নেই।’
নিউজিল্যান্ডের সংবাদপত্র জানাচ্ছে, ৩০ ম্যাচের ২১টিতে আগে বাংলাদেশকে হারানো নিউজিল্যান্ড দলের আরেকটি জয় তুলে নেওয়ার আত্মবিশ্বাস আছে। তারপর হয়তো টিম রুমে থ্রি লায়ন্সের জার্সি পরে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ দেখতে বসবেন না কেন উইলিয়ামসনরা। তবে স্টিভেন স্মিথের দলকে হারিয়ে দেওয়ার জন্য ইয়ন মরগানদের সমর্থন জোগাতেও তাদের লজ্জা লাগার কথা নয়!
তবে শর্ত তার আগে একটাই, বাংলাদেশকে হারাতে হবে! পারবে তারা?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here