১০০০ লাইক চাই, নয়তো একে ফেলে দেবো!

0
24

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মানুষ ফেসবুকে লাইক পেতে সুন্দর সুন্দর ছবি তোলেন, তোলেন বিচিত্র ছবি। কিন্তু ছবিতে লাইক পেতে একটা জীবনকে ঝুঁকিতে ফেলে দেয়া কতটা স্বাভাবিক কাজ। এমনই এক কাণ্ড ঘটেছে উত্তর আফ্রিকার আলজেরিয়ায়। সেখানে এক শিশুকে জীবনের ঝুঁকিতে রেখে ছবি তোলা হয়েছে শুধু লাইক পাওয়ার জন্য।

ছবিটিতে দেখা যাচ্ছে একটি বহুতল ভবনের ১৫ তলার বারান্দা থেকে ঝুলছে ওই শিশু। তাকে জামার কলার ধরে ঝুলিয়ে ধরে রয়েছেন শিশুটিরই এক আত্মীয়। বাঁ হাতে শিশুটিকে ঝুলিয়ে ডান হাতে ধরা মোবাইল ক্যামেরায় ছবি তুলে তা পোস্ট করেন নিজের ফেসবুক পেজে। ছবির নীচে লেখেন, ছবিতে ১০০০ লাইক চাই, নয়তো একে ফেলে দেবো।

 

গত রোববার ওই ব্যক্তি ফেসবুকে ছবিটি পোস্ট করার পর সেটিকে ঘিরে তোলপাড় শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। নজিরবিহীন এই ঘটনার নিন্দায় সরব হয়েছেন হাজার হাজার মানুষ। কেউ কী করে সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইক বা কমেন্ট পাওয়ার মোহে একটি শিশুকে এভাবে বিপদে ফেলতে পারেন, তা ভেবে কুল পাচ্ছেন না তারা। অনেকে ওই ব্যক্তির মানসিক সুস্থতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন।

ইদানীং গোটা বিশ্বে বিপজ্জনকভাবে সেলফি তুলতে গিয়ে প্রাণ হারাচ্ছেন বহু মানুষ। তার উপর সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি আসক্তি মানুষকে যেভাবে দিনের পর দিন আরও বেপরোয়া করে তুলছে, তা চিন্তা বাড়িয়েছে বিশ্বের অসংখ্য মনোবিদের।

আলজেরিয়ার সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, শিশু নিগ্রহের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় ওই ব্যক্তিকে। যদিও সে দেশের এক সংবাদ মাধ্যমে অভিযুক্ত ব্যক্তি দাবি করেন, তাকে ফাঁসানো হয়েছে। বারান্দার ঘেরাটোপেই শিশুটিকে নিয়ে এই ছবিটা তোলা হয়েছিল। শিশুটির জীবন কোনও ভাবেই বিপন্ন করেননি তিনি। অভিযুক্ত ব্যক্তি পাল্টা অভিযোগের আঙুল তুলেছেন সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধেই।

তার অভিযোগ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিটিকে বিকৃত করা হয়েছে। যদিও ওই ব্যক্তির সব দাবি, অভিযোগ উড়িয়ে তাকে দু’ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here